কিভাবে সোর্স কোড লিখতে হয়?

প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর বেসিক ফাউন্ডেশন বাংলা টিউটোরিয়াল এ আবারও আপনাদের সবাইকে স্বাগতম।

প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এ সোর্স কোড Plain Text এ লিখা হয়। আপনি আপনার কম্পিউটার এর যেকোন অপারেটিং সিস্টেম এর টেক্সট এডিটর বা নোট প্যাড এও আপনি সোর্স কোড লিখতে পারেন।

How to write source code

এখন আপনাদের এসব কোড নিয়ে চিন্তিত হওয়ার বা মুখস্ত করার দরকার নেই। আমি এসব নিয়ে পরে আরও আলোচনা করব। শুধু ভালভাবে লক্ষ্য করলেই হবে। এখানে আপনারা দেখতে পাছেন file extension গুলু আলাদা। যেমন .js JavaScript এর জন্য বা .php PHP এর জন্য বা .pl Perl এর জন্য, কিন্তু সবগুলোই সাধারণ নোট প্যাড এ লিখা হয়েছে। যা নোট প্যাড এর Plain Text এ লিখা হয়েছে। এগুলো খুবই সহজ কিন্তু টেকনিক্যালি সঠিক প্রোগ্রামিং সিনট্যাক্স। এখানে যা আছে তা হল একটা Statement, একটা Instruction, যার Output হবে Hello, World.

কিছু প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর সিনট্যাক্স অনেকটাই একই রকম যেমন ALGOL / Python / Lua তে আমরা দেখতে পাইঃ

print (“Hello, World”)

এর রেজাল্ট একই। এইরকম অনেক ল্যাঙ্গুয়েজ আছে যাদের সিনট্যাক্স প্রায় একই রকম, তার মানে কিন্তু এই নয় যে তারা একটি ল্যাঙ্গুয়েজ, তাদের মধ্যও অনেক পার্থক্য আছে।

কিছু ল্যাঙ্গুয়েজ এ এইরকম এক লাইন কোড লিখে Statement শেষ করা যায় না। কিছু কিছু ল্যাঙ্গুয়েজ এ সুরু এবং শেষ বলে দিতে হয়। যেমন

c tutorial

c-sharp tutorial

java tutorial

এখন হয়ত আপনি চিন্তা করছেন আপনাকে সব কি মুখস্ত করতে হবে? না আপনাকে সব মুখস্ত করতে হবে না। কারন অনেক প্রোগ্রামিং এডিটর আছে যেখানে এগুলো নিজ থেকেই চলে আসে। তবে হ্যাঁ আপনি যদি টেক্সট এডিটর বা নোট প্যাড ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনাকে নিজ থেকেই সব লিখতে হবে। কি আপনি যদি প্রোগ্রামিং করার জন্য প্রোগ্রামিং এডিটর ব্যবহার করেন, তাহলে কোড করা আপনার জন্য অনেক সহজ হয়ে যাবে। অনেক প্রোগ্রামিং এডিটর আছে, তার মধ্য কিছু ফ্রী, কিছু পেইড। যেখানে আপনি পাবেন লাইন নম্বর, ফাইন্ড এবং রিপ্লেচ, কালার কোডিং যা আপনাকে কোডিং এর আলাদা আলাদা অংশ গুলো চিনতে সাহায্য করবে, Syntax চেকিং যা আপনার কোড এ কোন ভুল থাকলে তা ধরিয়ে দিবে। কিছু প্রোগ্রামিং এডিটর আছে যা কিছু নির্দিষ্ট প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর জন্য কাজ করে, আবার কিছু প্রোগ্রামিং এডিটর আছে যা একই সাথে অনেক প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এর জন্যই কাজ করে। যদি আপনি ওয়েব ডেভলপম্যন্ট করতে চান তাহলে আপনি দেখতে পাবেন যে আপনার পছন্দের ওয়েব ডেভলপম্যন্ট ল্যাঙ্গুয়েজ এর জন্যও কিছু এডিটর আছে।

এখন আমরা জানব Integrated Development Environments (IDE) সম্পর্কে। এটা ব্যবহার করা হয় বড় বড় প্রোগ্রামিং করার জন্য, যা আসলেই খুই ভাল এবং যেখানে আপনি পাবেন প্রোফেসনাল প্রোগ্রামিং করার জন্য প্রয়োজনীয় সব ফিচার। অনেক IDE আছে তার মধ্যঃ Apple Xcode ম্যক পিসির জন্য, Microsoft Visual Studio, .Net Development এর জন্য, Net Beans এবং eclipse, যেগুলো কে cross platform IDE বলা হয়, যা সাধারণত ব্যবহার হয় Java, PHP, ওয়েব ডেভলপম্যান্ট এবং আরও অনেক ডেভলপম্যান্ট এর জন্য।

যখন আমরা কোড লিখা শুরু করি তখন প্রধানত আমাদের যা জানা দরকার তা হল, আমরা যে কোড লিখি তা কিভাবে মেশিন কোড এ কনভার্ট হয়, যাতে এটা একা একাই সঠিক ভাবে কম্পিউটারে রান হয়।

Leave a Reply